শিরোনাম:

২০০০ বছরের অলৌ’কিক শিব’লিঙ্গ, যা থেকে অনবরত তুলসী পাতার গন্ধ বেরোয়.. কোথায় এই মন্দির?

অলৌ’কিক দেশ হিসাবে আমাদের দেশকে বিবেচনা করা হয়। প্রায়শই কিছু কিছু অলৌ’কিক ঘটনা কেউ এখানে খুঁজে পায় বা শুনতে পায়। সারা বিশ্ব জুড়ে কেবল আমাদের দেশে এমন অনেক মন্দির রয়েছে যা তাদের অলৌ’কিক কাজের জন্য বিখ্যাত। আপনিও কোনওভাবে মন্দির গুলির অলৌ’কিক ঘটনা সম্পর্কে অবশ্যই শুনে থাকবেন।

আমরা যদি ভগবান শিব এবং তাঁর মন্দিরগুলির বিস্ময়ের কথা বলি, তবে এমন অনেক শিব মন্দির রয়েছে দেশজুড়ে যেখানে ভগবান শিব তাঁর অলৌ’কিক মহিমা দেখান। লোকেরা প্রত্যহ এই মন্দিরগুলির সামনে মাথা নত করে এই অলৌ’কিক কাজের জন্য এবং ভগবান শিবের কাছে প্রার্থনা করে তাদের জীবনের সমস্যাগুলি দূর করার জন্য।

তবে আজ আমরা আপনাকে এমন একটি অনন্য শিবলি’ঙ্গ সম্পর্কে অবহিত করতে যাচ্ছি যা সারা বিশ্বে তাঁর অলৌ’কিক কাজের জন্য পরিচিত। এটি সর্বত্র বিখ্যাত, যে এই শিবলি’ঙ্গের নিকটে আসলে তুলসী পাতার ঘ্রাণ পাওয়া যায়। লোকেরা বেশ অবাক হয় এই কথা শুনে। আসলে, ছত্তিশগড়ের সিরসপুরে খননকালে একটি শিবলি’ঙ্গ বেরিয়ে আসে, যা মানুষকে বিস্মিত করেছিল। শিবলি’ঙ্গ সম্পর্কিত অলৌ’কিক বিষয়টি ছিল এই শিবলি’ঙ্গটি পরিহিত ছিল জেনিউ দ্বারা এবং এটির সাথে কিছু মুদ্রা এবং তামার ফলকও পাওয়া গেছে। সেই সঙ্গে শিলালিপিও এবং বাসন এখানে পাওয়া গেছে।

শিবলি’ঙ্গের উপরে স্ট্রিপগুলি তৈরি করা হয়েছিল, প্রত্নতাত্ত্বিক বিভাগ। ছত্তিশগড় রাজ্যের সিরসপুর নামক স্থানে খননকালে পাওয়া দুর্লভ শিবলি’ঙ্গকে দেখে অবাক হয়ে গিয়েছিল। লোকরা এই শিবলি’ঙ্গ টিকে দেখার জন্য প্রচুর ভিড় জমায়। তারপরে তুলসী পাতার ঘ্রাণও পাওয়া যায় সেই শিবলি’ঙ্গ থেকে। এই বিষয়টি এক অলৌ’কিক ঘটনার সূত্র হয় এবং ওই অঞ্চলের আলোচনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রায় ৪ ফুট এই শিবলি’ঙ্গের দৈর্ঘ্য বলে জানা যায়।

এই শিবলিঙ্গটি প্রায় ২০০০ বছরের পুরানো বলে জানা গেছে প্রত্নতাত্ত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের ব্যাখ্যা অনুসারে। এই শিবলি’ঙ্গ দেখতে দূর-দূরান্ত থেকে লোকেরা এখানে ছুটে আসে। বলা হয় এই জায়গায় বহু বছর আগে এখানে একটি বড় মন্দির ছিল, বন্যার কারণে সেটি ধ্বংস হয়ে গিয়েছিল। এই মন্দিরটি প্রথম শতাব্দীতে এই জায়গাতেই সারভপুরিয়া রাজা দ্বারা নির্মিত হয়েছিল বলে কথিত আছে। এখানে খননকালে অনেক ছোট-বড় শিবলি’ঙ্গ পাওয়া গিয়েছিল, কিন্তু খননের সময় এই বিশাল আকারের শিবলি’ঙ্গ বেরিয়ে আসার পর সবাই অবাক হয়েছিল।

পুরানো সভ্যতার ইতিহাস এই মাটিতে লুকিয়ে আছে বলে জানিয়েছেন প্রত্নতাত্ত্বিক বিশেষজ্ঞরা। খননকালে এই শিবলি’ঙ্গ বের হওয়ার সময় বিশ্বাসী মানুষের ভিড় জেগে ওঠে এবং প্রচুর জনমানব এই শিবলি’ঙ্গটি দেখতে ছুটে আসে। তবে তুলসী পাতাগুলির ঘ্রাণকে কোন অলৌ’কিক ঘটনা বলে মনে করা হয় না, কিন্তু তা থেকে তুলসী পাতার সুগন্ধ কেন আসে? এখনও এটি সম্পর্কে কোনও তথ্য জানা যায় নি, লোকেরা এটিকে ভগবান শিবের একটি অলৌকিক মাহাত্ম্য বলে মনে করে এবং দূর-দূরান্ত থেকে লোকেরা এখানে মহাদেবের সেই মাহাত্ম্যই দেখতে আসে।

Check Also

আগামীকাল রাধাষ্টমী , সঠিক নিয়মে করুন এই কাজ, সুখ আসবে জীবনে, মনষ্কামনা পূরণ হবে..

হিন্দু ধর্ম অনুসারে জন্মাষ্টমীতে কৃষ্ণের আবির্ভাব দিবস পালনের কয়েক দিন পরেই শ্রীরাধিকার জন্মদিবস। ভাদ্র মাসের …