শিরোনাম:

মা লক্ষ্মীর প্রিয় এই ২টি গাছ, বাড়িতে না থাকলে অবশ্যই লাগান | ধনবর্ষা হবে সংসারে..

বাস্তুশাস্ত্র থেকে শুরু করে আমাদের হিন্দু ধর্মের প্রত্যেক ক্ষেত্রে বলা হয় বাড়িতে থাকা বেশ কয়েকটি গাছ সুখ সমৃদ্ধি ও অর্থনৈতিক উন্নতিতে সাহায্য করে। সেই কারণে গাছগুলি বাড়ির উপযুক্ত স্থানে থাকলে সৌভাগ্য সমৃদ্ধি বাড়তে বাধ্য। প্রথম যে কাজটি সম্পর্কে বলবো সেটি সম্পর্কে হয়তো অনেকেই জানেন এবং অনেক হিন্দু গৃহস্থের বাড়িতে সেই গাছ হয়তো আছে, আর যদি না থাকে তা অবশ্যই লাগিয়ে নিন। আসুন বিস্তারিত জেনে নিই..

এই গাছটি হলো তুলসী গাছ। তুলসী গাছ যেকোনো বাড়িতেই সুখ সমৃদ্ধ বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। বি’পদ আসলে সহজে সেই গৃহে প্রবেশ করতে পারে না। যে স্থানে তুলসী গাছ থাকে সেই স্থানকে অত্যন্ত পবিত্র স্থান হিসেবে মনে করা হয়। যদি বাড়িতে তুলসী গাছ থেকে থাকে তাহলে একটি তুলসী মঞ্চ করা অবশ্যই প্রয়োজন। অর্থাৎ এই তুলসী গাছের কিছু নিয়ম মেনে তাকে প্রতিষ্ঠা করা উচিত। এই গাছটি উত্তর দিকে বা উত্তর-পূর্ব দিকে বা পূর্বদিকে লাগাতে পারেন।

দ্বিতীয় যে গাছটির কথা বলব সেটি হল নারিকেল গাছ, হয়তো অনেকেরই বাড়িতে এই গাছটি আছে। বাঙালি বাড়ির বিভিন্ন কাজে বা পুজো-আর্চার ক্ষেত্রে ও নারকেল ব্যবহার করা হয়। এবং তার পাশাপাশি প্রত্যেকটি পুজোয় প্রয়োজন পড়ে ডাবের, সেই কারণেই এই গাছটিকে অত্যন্ত পবিত্র কাজ বলে মনে করা হয়েছে হিন্দু শাস্ত্রে। এর উপকারিতা আমাদের প্রত্যেক ব্যক্তির জানা। তাই এটি একটি খুব পবিত্র ও প্রয়োজনীয় গাছ।

যদি আপনার বাড়িতেই কাছ থেকে থাকে তাহলে তা সৌভাগ্যের প্রতীক বহন করছে। আর যদি বাড়িতে না থেকে থাকে তাহলে সেটি দক্ষিণ বা দক্ষিণ পশ্চিম দিক নাকাদ লাগান। তৃতীয় যে গাছটির কথা বলব সেটি আমাদের হিন্দু শাস্ত্রে বড়ই পবিত্র গাছ হিসেবে মনে করা হয় এবং মা লক্ষ্মীর অত্যন্ত প্রিয় এই গাছটি। সেই গাছটি হলো সুপারি গাছ। অর্থনৈতিক দিক থেকে যেমন এই গাছটি খুবই উপকারী তেমনই এর ভেষজ গুণও অত্যন্ত রয়েছে।

এছাড়াও বাস্তুশাস্ত্রে এর অনেক গুণ রয়েছে বলে মনে করা হয়। তাই বাড়িতে সুপারি গাছ থাকা অত্যন্ত প্রয়োজন।যদি আপনার বাড়িতে সুপারি গাছ থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই তার পরিচর্যা করুন এবং যদি না থেকে থাকেযদি আপনার বাড়িতে সুপারি গাছ থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই তার পরিচর্যা করুন এবং যদি না থেকে থাকে তাহলে একটি সুপারি গাছ বাড়ির দক্ষিণ-পশ্চিম বা পশ্চিম দিকে লাগানোর।

যদি বাড়িতে নারকেল গাছ বা সুপারি গাছ লাগানোর জায়গা না থাকে তাহলে আপনি মানিপ্লান্ট বা টাকার গাছ এই ধরনের ভেষজ উদ্ভিদ বাড়িতে লাগাতে পারেন। এই গাছটি আপনার বাড়িতে থেকে থাকে তাহলে আপনার বাড়িতে অর্থনৈতিক দিক থেকে কোন সমস্যা ঘটবে না এছাড়াও বাড়ি সর্বদাই একটি পজিটিভ শক্তিতে ভরভরন্ত থাকবে। তাই এই গাছটিকে আপনি বাড়ির মধ্যেও লাগাতে পারেন।

পঞ্চম গাছটি হলো কলাগাছ। যেটি মা লক্ষ্মীর খুবই প্রিয় এবং বাস্তুশাস্ত্র মতে যার গুন খুবই ভালো। বাস্তুশাস্ত্র বিশেষজ্ঞরা বলেছেন বাড়িতে কলাগাছ থাকা খুবই প্রয়োজনীয় এটি বাড়ির সুখ-সমৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে অর্থনৈতিক উন্নতিতে খুবই প্রয়োজনীয় একটি উপাদান। এছাড়াও বাড়ির প্রত্যেকটি পুজোতে কলা গাছ রাখা অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। তবে একটা কথা মনে রাখবেন বাড়ির সামনে কলা গাছ লাগাবেন না লাগাতে হলে লাগাবেন বাড়ির পেছনদিকে।

শেষ যে গাছটির কথা বলব সেই গাছটি হলো মা লক্ষ্মীর প্রতীক ধান গাছ। ধান গাছ হয়তো বাড়িতে হয় না জমিতে চাষ করা হয় কিন্তু এক্ষেত্রে ধান গাছ বাড়িতেই লাগাতে হবে। বিস্তারিত এলাকাজুড়ে না হলেও কোন মাটির টবে আপনি কিছু ধান গাছ লাগাতে পারেন। সেই গাছ থেকে যে পরিমাণ ধান হবে সেই পরিমাণ ধান আপনি দেবীর পূজোয় কাজে লাগান।

এছাড়া আপনার বাড়িতে নিজস্ব কোন পুকুর থেকে থাকে তাহলে সেই পুকুরে অবশ্যই কিছু পদ্মফুল লাগাতে পারেন মা লক্ষ্মীর আশীর্বাদের প্রধান অঙ্গ। সৎ মা লক্ষ্মী আপনার গৃহে বিরাজ করবেন এবং সুখে স্বাচ্ছন্দে ভরে উঠবে আপনার গৃহ।

Check Also

এই মল মাসে রোজ সকালে পাঠ করুন এই ১টি দুর্গামন্ত্র | সংসার সুখ শান্তিতে ভরে উঠবে..

দুর্গাপূজা শুরু হতে আর মাত্র কয়েকটা দিন বাকি। এবছর মহালয়ার ৩৫ দিন পর দুর্গাপুজো পড়েছে। …