শিরোনাম:

রাম মন্দির প্রতিষ্ঠার অপেক্ষায় টানা ২৮ বছর অন্নগ্রহণ করেননি এই বৃদ্ধা, সবাই অবাক..

দীর্ঘ ২৮ বছর ধরে তৈরি করা খাবার ছুঁয়ে দেখেননি তিনি। শুধুমাত্র ফল ও দুধ খেয়েই বেঁচে আছেন ৮৭ বছর এর বৃদ্ধা ঊর্মিলাদেবী। এটা কোন গল্প নয় এটাই সত্যি। এবার সবার মনেই প্রশ্ন আসবে যে এমন কঠিন সংকল্পের কারণ কী? জানা গিয়েছে যে রাম মন্দিরের বিষয়ে ইতিবাচক পদক্ষেপের অপেক্ষায় তিনি এমন কঠিন সংকল্প নেন।

করসবকেরা যখন অযোধ্যার বিত’র্কিত সেই কাঠামোটি ভেঙে দেন তখন দেশ জুড়ে আ’গুন জ্ব’লে ওঠে। আর এই খবরের সবটাই খবরের কাগজের মাধ্যমে নজরে পড়ে ঊর্মিলাদেবীর। তখনই তিনি সিদ্ধান্ত নেন যে, যতদিন পর্যন্ত না রাম মন্দিরের কোনোরকম ইতিবাচক সমাধান হয় ততদিন পর্যন্ত তিনি খাবার গ্রহণ করবেন না।

প্রতিদিন দুই বেলা তাঁর খাবারের তালিকায় থাকতো সামান্য ফলমূল ও দুধ। তাঁর পরিবারের লোকজন কখনো তাঁর উপর বিধিনিষেধ চাপিয়ে দেয়নি। তাঁর পরিবারের লোকজন তাঁর স্বাস্থ্যবিধির খেয়াল রাখতেন সবসময়ই। ভারতের রাজনীতিতে বদল এসেছে বারবার। রাম মন্দির প্রতিষ্ঠা হবে কিনা সেই বিষয় বিতর্ক চলেছে বহুবছর।

কিন্তু ঊর্মিলাদেবী নিজের সিদ্ধান্তে অটল ছিলেন। ২৮ বছর আগে তিনি শপথ করেন রাম মন্দির বিষয়ে কথা না হলে খাবার ছোঁবেন না। আর সেই কঠিন সংকল্পকে সঙ্গী করে তিনি কাটিয়ে দিয়েছেন পুরো ২৮ বছর।

আগামীকাল ৫ই অগাস্ট রাম মন্দিরের ভূমি পুজো। করোনার প্রকোপের কারনে খুব ছোটো করেই আয়োজিত হবে পুজোর অনুষ্ঠান। অবশেষে তাঁর দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান হল। তাঁর কঠিন তপস্যা সার্থক হল। তিনি ভূমি পুজোর অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে চাইছিলেন। কিন্তু বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে তা সম্ভব নয় বলে তাঁকে বোঝানো হয়েছে তাঁর পরিবারের তরফ থেকে। তিনি বাড়িতে বসেই ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যাতে সম্পূর্ণ অনুষ্ঠানের সাক্ষী থাকতে পারেন সেই ব্যবস্থা করা হয়েছে।

Check Also

আগামীকাল রাধাষ্টমী , সঠিক নিয়মে করুন এই কাজ, সুখ আসবে জীবনে, মনষ্কামনা পূরণ হবে..

হিন্দু ধর্ম অনুসারে জন্মাষ্টমীতে কৃষ্ণের আবির্ভাব দিবস পালনের কয়েক দিন পরেই শ্রীরাধিকার জন্মদিবস। ভাদ্র মাসের …