শিরোনাম:

বিসিসিআই এর নতুন প্রেসিডেন্ট বাংলার গর্ব সৌরভ গাঙ্গুলি.. পড়ুন বিস্তারিত..

নাটকের পর নাটক বললেও হয়তো কম বলা হবে। আর সেই নাটকের অন্তিম লগ্নে সর্বসম্মতিক্রমে বিসিসিআই’য়ের নয়া প্রেসিডেন্ট পদে বসতে চলেছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। কর্ণাটক ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের প্রাক্তন সচিব তথা দেশের প্রাক্তন টেস্ট ক্রিকেটার ব্রিজেশ প্যাটেল দিনভর এই দৌড়ে এগিয়ে থাকলেও শেষমুহূর্তে বাজিমাত করে গেলেন বাংলার ‘মহারাজ’।

বোর্ডের সভাপতি পদে লড়াইটি মূলত ছিল সৌরভ ও শ্রীনিবাসন ঘনিষ্ঠ ব্রিজেশ প্যাটেলের সঙ্গে। কোনও কোনও মহলের ধারনা ছিল ব্রিজেশই শেষপর্যন্ত সভাপতি নির্বাচিত হচ্ছেন। এনিয়ে জোরদাল লবি করাও শুরু হয়ে যায়। সেই জল্পনায় জল ঢেলে দিলেন সৌরভ।

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, ব্রিজেশ প্যাটেলের সঙ্গে বিসিসিআই মসনদে বসার দৌড়ে এগিয়ে ছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের পুত্র জয় শাহও। তবে প্রেসিডেন্ট নয়, বিসিসিআই’য়ের নয়া সচিব পদে আসীন হতে চলছেন অমিত পুত্র। এদিকে কোষাধ্যক্ষ পদে বসতে পারেন অরুন ধুমালকে। প্রাক্তন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট অনুরাগ ঠাকুরের ভাই হিসেবে ক্রিকেটমহলে ভালোই জনপ্রিয় তিনি।

আজ সোমবার বিভিন্ন পদে মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষদিন। তবে নির্বাচন নয়, হয়তো বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতাতেই সর্বসম্মতিক্রমে বোর্ডের পদ অলংকৃত করতে চলেছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা। তবে দাদা প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচিত হলেও ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর মাসেই সেই পদ থেকে অব্যাহতি দিতে হবে সৌরভ গাঙ্গুলিকে। কারণ শীর্ষ আদালতের নিয়মানুসারে টানা ছ’বছর বোর্ডের কোনওরকম পদে দায়িত্ব সামলানোর পর সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির ‘কুলিং পিরিয়ডে’ যাওয়া আবশ্যক। দাদার আর ১০ মাস হাতে সময় আছে। এই ১০ মাস ভারতীয় ক্রিকেটের সর্বোচ্চ স্থানে বসে এক নতুন যুগের সূচনা করতে চলেছেন প্রিন্স অব ক্যালকাটা।

চারশোরও বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা দেশের অন্যতম সফল অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট পদ অলংকৃত করার বিষয়টি সাদরে গ্রহণ করছেন আপামর ভারতবাসী। উত্তর-পূর্ব জোনের এক সিনিয়র বিসিসিআই আধিকারিক বলেছেন, ‘শ্রী নিবাসন তাঁর হয়ে ব্যাট ধরার কারণে ব্রিজেশ দৌড়ে ছিলেন ঠিকই। কিন্তু তাঁকে সর্বসম্মতিক্রমে মেনে নিতে পারেনি সকলে। নয়া প্রেসিডেন্ট হিসেবে সৌরভকে পাওয়ায় আমরা ভীষণ খুশি।’ সবমলিয়ে গত কয়েকদিন ধরে রাজধানীতে বিস্তর লবির পর প্রিন্স অফ ক্যালকাটা’র বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট পদে বসা এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা। আগামী ২৩ অক্টোবর বার্ষিক সাধারণ সভায় আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হবে নয়া প্রেসিডেন্টের নাম।

Check Also

রাম মন্দির প্রতিষ্ঠার অপেক্ষায় টানা ২৮ বছর অন্নগ্রহণ করেননি এই বৃদ্ধা, সবাই অবাক..

দীর্ঘ ২৮ বছর ধরে তৈরি করা খাবার ছুঁয়ে দেখেননি তিনি। শুধুমাত্র ফল ও দুধ খেয়েই …